আমাদের ভাবনা-চিন্তা করার ক্ষমতা নষ্ট করে দিতে পারে মটরশুঁটি, দাবি গবেষকদের!

0
24


নিজস্ব প্রতিবেদন: শীতকালে বাজারে গিয়ে একটু-আধটু মটরশুঁটি প্রায় সকলেই কিনে নিয়ে আসেন। ছোট থেকে বড়— প্রায় সকলেরই মটরশুঁটি খেতে খুব ভালবাসেন। মটরশুঁটি অনেকে কাঁচাও খান। এই সময় রান্নার নানা পদে মটরশুঁটি দেওয়া হয়। এটি অত্যন্ত পুষ্টিকর ও সুস্বাদু একটি সবজি! কিন্তু জানেন কি আমাদের মস্তিষ্কের স্বাস্থ্যের জন্য মটরশুঁটি অত্যন্ত ক্ষতিকর! কারণ, গবেষণায় প্রমাণ মিলেছে, মটরশুঁটি আমাদের চিন্তাশক্তি দুর্বল বা নষ্ট করে দিতে পারে।

সাম্প্রতিক মার্কিন গবেষণার রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে, মটরশুঁটি বা ওই জাতিয় শস্যদানাকে আমাদের মস্তিষ্কের স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর। ডেইলি মেইল-এ প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন অনুযায়ী, আমাদের দৈনন্দিন খাদ্য তালিকায় থাকা একাধিক সবজি বা দানাশস্যকে আমাদের শরীরের জন্য ক্ষতিকর বলে ব্যাখ্যা করা হয়েছে। মার্কিন গবেষক চিকিৎসক ডঃ স্টিফেন গুন্ড্রির মতে, এমন বেশ কিছু গাছ গাছালি রয়েছে যেগুলি প্রচুর পরিমাণে ল্যাক্টিন উৎপন্ন করতে সক্ষম। এই ল্যাক্টিন ওই সব গাছপালাগুলির ‘ডিফেন্স মেকানিজম’-এর অঙ্গ। এই ল্যাক্টিন ওই গাছ-গাছালিগুলিকে কীট-পতঙ্গের হাত থেকে রক্ষা করে। উদ্ভিজ্জ ল্যাক্টিনের সংস্পর্শে এলে কীট-পতঙ্গ তাদের কার্যক্ষমতা হারিয়ে আড়ষ্ঠ হয়ে যায়। ডঃ স্টিফেন জানান, মটরশুঁটি, শসা, টমেটো, চিনা বাদাম, সয়াবিন, কাজু, শুকনো লঙ্কার মতো দানাশস্যয় ল্যাক্টিনের উপস্থিতি অনেক বেশি।

আরও পড়ুন: ডাস্ট অ্যালার্জিতে কড়া কড়া ওষুধ না খেয়ে কাজে লাগান এই অব্যর্থ টোটকাগুলি

মার্কিন গবেষকদের মতে, এই ল্যাক্টিন মানবদেহে প্রবেশ করলে তা শরীরে অ্যালার্জি, ব্রেন ফগ-এর মতো সমস্যা তৈরি করে। অনেক ক্ষেত্রে মানসিক অবসাদেরও কারণ এই ল্যাক্টিন। গবেষকদের মতে, ল্যাক্টিন রক্তের মাধ্যমে মস্তিষ্কে পৌঁছালে তা আমাদের চিন্তাশক্তি দুর্বল বা নষ্ট করে দিতে পারে।





Source link

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here