মোদী সরকারকে ‘মধ্যরাতের বিভীষিকা’ বলে কটাক্ষ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের

0
7


নিজস্ব প্রতিবেদন: রাজীব গান্ধী, নরসিমা রাও, অটলজির সরকার দেখেছি। এখনও দেখছি। মধ্যরাতের বিভীষিকা চলছে। একুশে জুলাইয়ের মঞ্চে এ ভাবেই এনডিএ সরকারকে তুলোধনা করলেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর অভিযোগ, কী বিল নিয়ে আসছে কেউ জানে না। মাঝ রাতে বিল আনা হচ্ছে। আর পাশ হচ্ছে সকালে। তৃণমূল নেত্রীর আরও অভিযোগ, যুক্তরাষ্ট্রীয় পরিকাঠামো ধ্বংস করছে মোদী সরকার।

একুশে মঞ্চে তৃণমূল নেত্রী আরও বলেন, শতাব্দী, প্রসেনজিত্কে ইডি ডেকেছে। তাঁদের বিজেপিতে যোগ দিতে বলা হচ্ছে। মমতা বলেন, “বিজেপিতে যোগ না দিলে তা বলে সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় হতে গবে। তাপস পাল হতে হবে।” এভাবে বিভিন্ন এজেন্সিকে দিয়ে ভয় দেখানো হচ্ছে বলে মমতার অভিযোগ।

এ দিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কাটমানির পালটা কাটমানি ও ব্ল্যাকমানি তোলার অভিযোগ করেন বিজেপির বিরুদ্ধে। তিনি বলেন, উজ্বলার কাটমানির হিসেব দিতে হবে বিজেপিকে। মুর্শিদাবাদে এলপিজি, পেট্রল পাম্প পাইয়ে দেওয়ার নামে কাটমানি তুলছে বিজেপি। এরপর, মমতার কটাক্ষ, “কী গামছা বাবু, উজ্বালাটা বের করি…খাপটা খুলি…চোরের মায়ে বড় গলা।” উজ্বলার কাটমানি নিয়ে তদন্তের দাবি জানান তিনি।

আরও পড়ুন- ন্যাশনাল স্ট্যাটাস দরকার নেই, আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পেয়েছে তৃণমূল, সর্বভারতীয় দলের তকমা প্রসঙ্গে মমতা

এরপর মমতার হুঁশিয়ার, ব্ল্যাকমানিও ফেরত্ দিতে হবে বিজেপিকে। নোটবন্দির পর কত টাকা নিজেদের পকেটে পুরেছে বিজেপির নেতা-মন্ত্রীরা, তার জবাব চাইলেন মমতা। এ দিন তিনি হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, জেলায়-জেলায় ব্ল্যাকমানির বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করা হবে। ‘সব টাকা ফিরিয়ে দাও- ফিরিয়ে দাও’ এটাই হবে তৃণমূলের স্লোগান। 

এদিন মমতার ২১ জুলাই সভা নিয়ে তীব্র কটাক্ষ করলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তাঁর দাবি, একুশে জুলাইয়ে লোক হয়নি। তাঁর কথায়, “হতাশা ঢাকতে সমস্ত দোষ বিজেপি ও দিলীপ ঘোষের উপর চাপাচ্ছেন। ওনার পার্টি ভেঙে গিয়েছে। লোক কম হয়েছে সভায়। এক একজনকে ৪ টে করে ডিম দিয়েও নষ্ট হয়েছে। বলতে পারতো লোক পাঠাতাম।”

লোক পাঠানো নিয়ে বিজেপিকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কটাক্ষ, “তোর যদি লোক না থাকে আমার থেকে ধার চা। সিপিএম-এর থেকে ধার চাইছে।” বিজেপি দুই কোটি টাকা এবং পেট্রোল পাম্প পাইয়ে দিয়ে দলে লোক টানছে বলে অভিযোগ মমতার।    





Source link

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here